Home / মিডিয়া নিউজ / আমার ছেলের নামে প্রতারণা করা হচ্ছে, অ্যাকশন তো নেবই : ববিতা

আমার ছেলের নামে প্রতারণা করা হচ্ছে, অ্যাকশন তো নেবই : ববিতা

বাংলাদেশে স্যোশাল মিডিয়ার ব্যবহার বেড়েছে অনেক হারে। আজ থেকে ৫ বছর আগেও এই স্যোশাল

মিডিয়া বিশেষ করে ফেসবুকের এত প্রচলন না থাকলেও এখন সেটা বেড়ে গেছে বহু গুনে। আর এই

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে দেশে এ নিয়ে বেড়ে গেছে অনেক

প্রতারণাও। সম্প্রতি এমন প্রতারণর শিকার হয়েছেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ববিতা এবং তার ছেলে। আর এ নিয়ে এবার বেশ কড়া সুর দিলেন এই অভিনেত্রী।
তিনি বলছিলেন, আমার ছেলে অনিক নাকি একজন ডিরেক্টরকে ফোন দিয়ে বলেছে, ’আমি ববিতার ছেলে, আমি কালের জন্য আপনার একটা ইন্টারভিউ করতে চাই।’ কী অদ্ভুত কথা! আমার ছেলে কানাডার অন্টারিওতে পড়াশোনা শেষ করে জব করছে। ক’দিন পরেই পিএইচডি শুরু করবে, আর সে নাকি বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের পরিচালকদের ইন্টারভিউ করবে… গলার স্বরে বিস্ময় মিশিয়ে কথাগুলো বলছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অভিনেত্রী ফরিদা আক্তার পপি, যিনি চলচ্চিত্র পর্দায় ববিতা হিসেবেই পরিচিত।

পরিচয় দিয়েই ইন্টারভিউ করতে চাইল? এমন প্রশ্নের উত্তরে ববিতা বলেন, ’এক্স্যাক্টলি।’ তিনি বলেন, ’আমার নামে অসংখ্য ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। একাধিক অ্যাকাউন্ট দিয়ে কী যে করছে, কিছুই বুঝে উঠতে পারছি না। আমার বোন চম্পার নামেও অনেকগুলো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। আমি বারবার এসব বন্ধ করতে বলেছি, বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় কথা বলেছি। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। যখন এবার আমার ছেলেকে জড়ানো হলো, এটা আসলে অসহনীয়- আমি তো এবার আইনি অ্যাকশন নেবই।’

বিভিন্ন সময় দেশের গণমাধ্যমগুলোতে খবর এসেছে, ববিতার নামে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে কে বা কারা চালাচ্ছে। আদতে তাঁর নামে কোনো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। এরপর ছোট বোন চিত্রনায়িকা চম্পার নামেও প্রচুরসংখ্যক ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে কে বা কারা চালাচ্ছে, আদতে চম্পা এসব ব্যবহার করেন না।

জনপ্রিয় অভিনেত্রী ববিতা বলেন, ’বেশ কয়েকজন পরিচালককে আমার ছেলের নামে ফেসবুক আইডি খুলে নক দেওয়া হয়েছে। তারপর ফোন নম্বর নিয়ে কথাও বলেছে। কেউ যদি বলে আমি ববিতার ছেলে অনিক, তাহলে নিশ্চয়ই মানুষজন তো সাড়া দেবেই। অনেক প্রবীণ পরিচালক রয়েছেন, যাঁরা হয়তো সোশ্যাল মিডিয়ার এই বিষয়টি খুব ভালোভাবে বোঝেন না। নিশ্চয়ই তারা এ রকম ফাঁদে পড়তে পারেন, জানি না কেউ ভুক্তভোগী হয়েছেন কি না, তবে বিষয়টি নিয়ে আমি সত্যিই চিন্তিত।’

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে প্রতারণা করা হচ্ছে উল্লেখ করে ববিতা বলেন, ’যারা এসব সাইবার অপরাধ করছে। তাদের কৌশলও অভিনব। যেমন একজন ডিরেক্টরের সঙ্গে অনিক পরিচয়ে কথা বলার সময় ওই ডিরেক্টরকে বলে, “আঙ্কল আম্মু বলেছিল…’, ’আচ্ছা আঙ্কল, আপনার ছবিতে যে রিয়াজ অভিনয় করেছিল ওটার নাম কী যেন?’ ’আচ্ছা আঙ্কল, আপনার সবচেয়ে আলোচিত ওই ছবিটার নাম কী যেন? মানে তাঁদের পেট থেকে কথা বের করে প্রতারক কথা চালিয়ে নিচ্ছে। ভাগ্যিস, আমাকে কেউ কেউ বলেছে বলেই আমি এখন সতর্কতার সঙ্গে বিষয়টি হ্যান্ডেল করব।’

ছেলে অনিকের বিষয়ে ববিতা বলেন, ’অনিক এখন নিজের চাকরি আর পড়াশোনা নিয়েই ব্যস্ত। কানাডার অন্টারিওর ওয়াটার লু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেছে। চাকরি করছে। শিগগিরই পিএইচডি গবেষণা করবে। এখন তার জগৎ নিয়ে ব্যস্ত। আমার ছেলেটাকে যদি ডিস্টার্ব করা হয়, তাহলে কেমন লাগে বলুন তো। এটা টু মাচ হয়ে গেছে। চম্পা ও আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিয়ে যা তা করেছে, অনেক নিষেধ সত্ত্বেও শোনেনি তারা। এবার আমার ছেলেটাকেও বিরক্ত করছে। এটা ভারি অন্যায়।’

আইনি পদক্ষেপ নেওয়া প্রসঙ্গে ববিতা বলেন, ’আমি একেবারেই ফেসবুক ব্যবহার পছন্দ করি না। ঠিক ওই জগতে আমি অভ্যস্ত নই, আমার ভালো লাগে না। এমন একটি জগতে আমার নাম ব্যবহার করে প্রতারণা করছে- এটা তো খুবই অনৈতিক। আমি প্রথমে নিকটস্থ থানায় যোগাযোগ করব। এরপর সাইবার অপরাধ দমন সংশ্লিষ্ট বিভাগে যোগাযোগ করে আইনি পদক্ষেপ নেব।

বাংলাদেশের সিনেমা জগতের এক সময়ের সব থেকে উজ্জল তারকার নাম ববিতা। যার হাত ধরে বাংলাদেশের সিনেমা পেয়েছিল সিনেমার নতুন স্বাদ। বিশেষ করে যার লাস্যময়ী রুপ আর অভিনয় শৈলীতে এখনো মেতে আছে পুরো বাংলাদেশ। একটা সময়ে ববিতার সিনেমা মানেই ছিল সুপার হিট। তবে বর্তমানে সিনেমা থেকে নিজেকে রেখেছেন অনেক দুরে। এক মাত্র ছেলেকে ঘিরেই এখন তার সব কিছু। ছেলে বিদেশে থাকার কারনে তিনি বছরের বেশি টা সময়ে দেশ বিদেশ ঘুরেই কাটিয়ে দেন।

Check Also

ভালো নেই পূর্ণিমা

ঢাকাই সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা ভালো নেই। হঠাৎ করে কয়েকদিন ধরে ঠাণ্ডাজ্বর ও গলা ব্যথায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.