Home / মিডিয়া নিউজ / এখন এই বয়সে আর অন্য কিছু নিয়ে ভাবতে চাই না : ডিপজল

এখন এই বয়সে আর অন্য কিছু নিয়ে ভাবতে চাই না : ডিপজল

বাংলা সিনেমা আলোচিত অভিনেতা ডিপজল। তার পুরো নাম মনোয়ার হোসেন ডিপজল। বাংলা সিনেমা

ইন্ডাস্ট্রিতে খল চরিত্রে অভিনয় করে তিনি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। অভিনয়জীবনে তার

সাফল্য কম নয়। খলচরিত্রে অভিনয় ছাড়াও তিনি বিভিন্ন চলচ্চিত্রে পার্শ্বচরিত্র এবং ইতিবাচক চরিত্রেও

অভিনয় করেছেন। বর্তমানে সিনেমায় অভিনয় করা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখলেও পরিচালক হিসেবে নিজেকে সিনেমা অন্তর্ভুক্ত করেছেন প্রবীণ অভিনেতা।

নায়ক হিসেবে চলচ্চিত্রে পথচলা শুরু করেন জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। এর পর খল অভিনেতা হিসেবে নিজের শক্ত অবস্থান তৈরি করেন। পরবর্তী সময়ে আবারও প্রধান চরিত্রে দেখা যায় তাঁকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনাতেও নিয়মিত তিনি। জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত চলচ্চিত্রে কাজ করতে চান তিনি, এমনটিই জানিয়েছেন এনটিভি অনলাইনকে।

মনোয়ার হোসেন ডিপজল আজ শনিবার বলেন, ’সারা জীবন আমি সিনেমাতেই কাজ করেছি। আমার ধ্যান- জ্ঞান সবই চলচ্চিত্রকে কেন্দ্র করে। এখন এই বয়সে আর অন্য কিছু নিয়ে ভাবতে চাই না, বাকি জীবনটা আমি সিনেমা করেই কাটিয়ে দিতে চাই।’

তবে চলচ্চিত্রের এখন মূল সমস্যা গল্প সংকট বলে দাবি করে ডিপজল বলেন, ’আমাদের দেশে চলচ্চিত্রের মূল সংকট শিল্পী নয়, মূল সংকট গল্প। সময়োপযোগী গল্প এখন পাওয়া যায় না। আর পুরাতন ধাঁচের গল্প দর্শক এখন আর দেখতে চায় না। আমি মনে করি, সময়োপযোগী গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মিত হলে দর্শক তা দেখবে।’

নতুন বছরে নতুন চলচ্চিত্র শুরু করবেন জানিয়ে ডিপজল বলেন, ’আমি এরই মধ্যে তিনটি চলচ্চিত্র তৈরি করেছি। আগামী বছর তা মুক্তি দেব। এ ছাড়া নতুন বছরে নতুন চলচ্চিত্র শুরু করব। বর্তমান সময়ে দেলোয়ার হোসেন দিল ভালো গল্প লিখছেন। তিনি আমার জন্য দুটি গল্প তৈরি করছেন। আশা করি এই ছবিগুলো দর্শক পছন্দ করবে।’

ডিপজল ১৯৮৯ সালে ’টাকার পাহাড়’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে রুপালি পর্দায় আসেন। ডিপজলের বড় ভাই শাহাদাত হোসেন বাদশা, যিনি ’বাদশা ভাই’ নামে পরিচিত; তিনি সান পিকচার্সের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেন। এটি পরিচালনা করেন মনতাজুর রহমান আকবর। আকবরেরও এটি প্রথম পরিচালিত ছবি। তবে ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৩ সালে।

ডিপজল অভিনীত সর্বশেষ চলচ্চিত্র ’দুলাভাই জিন্দাবাদ।’ পারিবারিক অ্যাকশনধর্মী এই চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায় ২০১৭ সালে। এর গল্প লিখেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু। চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মনতাজুর রহমান আকবর। ডিপজলের সঙ্গে ছবিতে জুটি বাঁধেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৌসুমী। এ ছাড়া এতে অভিনয় করেন মিম ও বাপ্পী। রাজেশ ফিল্মসের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেন মো. নাদির খান।

প্রতিটি সিনেমায় খল চরিত্রের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। সিনেমার অন্যতম কষ্টকর একটি চরিত্র হলো খল চরিত্র। সিনেমায় ইতিবাচক চরিত্রের মানুষের অভাব না থাকলেও খল চরিত্রের অভাব বেশি।বর্তমানে বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে খলনায়ক এর অভাব বেশ হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন চলচ্চিত্র প্রযোজকরা। যারা আছেন তারা একরকম না থাকার মতই।

Check Also

খোঁজ পাওয়া গেল সালমান শাহের আরেক নায়িকা সন্ধ্যার

ঢালিউডে তিনি যাত্রা করেছিলেন ‘প্রিয় তুমি’ সিনেমা দিয়ে। সেটা ১৯৯৫ সালের কথা। কলেজে পড়ার সময় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.