Home / মিডিয়া নিউজ / ১৯ বছর পর জানা গেল শাবানার অভিনয় ছাড়ার আসল কারণ!

১৯ বছর পর জানা গেল শাবানার অভিনয় ছাড়ার আসল কারণ!

অভিনয় ছাড়ার আসল কারণ- ঢাকাই চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী অভিনেত্রী শাবানা। প্রায় চার দশক ধরে

তিনি দুর্দান্ত প্রতাপের সঙ্গে অভিনয় করেছেন বাংলা সিনেমায়। সমাজ ও পারিবারিক জীবনের বহু

সমস্যা তিনি তুলে ধরেছেন অভিনয়ের মাধ্যমে। দর্শককে হাসিয়েছেন, কাঁদিয়েছেন। ৪০ বছরের অভিনয়

জীবনে শাবানা তিনধতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন। অসামান্য অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে রেকর্ড ১১ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন গুণী এই অভিনেত্রী।

২০০০ সালে হঠাৎ চলচ্চিত্রকে বিদায় জানান জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। স্বামী ও তিন সন্তান নিয়ে বর্তমানে সেখানেই বসবাস করছেন তিনি। তবে শাবানা হঠাৎ কেন অভিনয় ছেড়েছিলেন সেই প্রশ্ন আজও দর্শকদের মনে ঘুরপাক খায়। দীর্ঘ ১৯ বছর পর সম্প্রতি সেই অজানা কথা ফাঁ’স করলেন শাবানার স্বামী প্রযোজক ওয়াহিদ সাদিক।

পারিবারিক কাজে সপ্তাহ খানেক আগে ঢাকায় এসেছেন ওয়াহেদ সাদিক। তার ফাঁকে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। বলেন সেই অজানা কথা। স্ত্রীর অভিনয় ছাড়া প্রসঙ্গে বলেন, ‘শৈশব থেকে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত ছিল শাবানা। নিজেকে সে সময় দিতে পারেনি। তাই অভিনয় ছেড়ে এখন নিজের মতো করে সময় কাটাচ্ছে।’

বাংলা চলচ্চিত্র শিল্প এখনও শাবানাকে হারানোর ক্ষত কাটিয়ে উঠতে পারেনি জানিয়ে বলেন, ‘তার শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। শাবানা অভিনয় ছাড়ার পর ঢাকার ফিল্মের এমন দুরাবস্থা হবে কল্পনাও করতে পারিনি। একজন অভিনয় থেকে অবসর নিতেই পারে, তাই বলে আরেকজন সিনেমা করবে না, তাতো হয় না। এমটা হচ্ছে বলেই ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রি সংকট কাটিয়ে উঠতে পারছে না।’

ফুপিয়ে কেঁদে উঠে শাবানা বললেন ‘মানুষ আমাকে এখনো কেন এতো ভালোবাসে’

ষাট থেকে নব্বইয়ের দশকে বড়পর্দা মাতানো ঢালিউডের বিউটি কুইনখ্যাত জীবন্ত কিংবদন্তি অ’ভিনেত্রী শাবানা এখনো তেমনই সৌন্দর্যের অধিকারী। বয়স তাকে একটুও ছুঁতে পারেনি। সম্প্রতি দেশে এসেছেন তিনি।

শাবানার প্রশ্ন- আমাকে এখনো মানুষ এতো ভালোবাসে কেন? বলতে বলতেই ফুপিয়ে কা’ন্না তার। কোনোভাবে কা’ন্না সং’য’ত করে তিনি বললেন, ‘জানেন প্রতিদিন ভোরে ম’র্নিংওয়াকে বের হই। সেদিন আমি পার্কে হাঁটছি, একটা মে’য়ে এসে আমাকে বলল, যদি কিছু মনে না করেন তাহলে একটা কথা বলি। আমি বললাম বলো।

মে’য়েটি বলল, আপনি আমাদের শাবানা আপা না? আমি হেসে উঠলাম। আমা’র হাসি দেখে তার উচ্ছ্বাসের মাত্রা আরও বেড়ে গেল। খুশিতে আত্মহারা হয়ে বলে উঠল- হ্যাঁ, ঠিকই তো, আপনি আমাদের শাবানা আপা। ওই যে আপনার সেই ভুবন ভোলানো হাসি, বলতে বলতে সে আমাকে জড়িয়ে ধরল। আমি অ’বাক চোখে তার দিকে তাকিয়ে রইলাম। মুখে কোনো কথা নেই।

নিজেকে প্রশ্ন করলাম- এতটুকু মে’য়ের পক্ষে তো আমাকে চেনার কথা নয়, হয়তো তার মা-বাবা আমাকে চিনতে পারেন। কারণ তাদের সময়ে আমা’র ছবি মুক্তি পেত। ও বলল, আমি এখনো টিভি, ইউটিউবে আপনার ছবি দেখি। আপনাকে আমা’র অনেক ভালো লাগে। এ ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে আবারও ডু’করে কেঁদে উঠলেন ঢালিউডের এ বিউটি কুইন।

আবারও তার কা’ন্নাভেজা প্রশ্ন, আমাকে এখনো মানুষ এতো ভালোবাসে কেন। কারও জন্য তো কখনো কিছু করতে পারিনি। তার কথায় শুধু দেশে নয়, বিদেশের মাটিতেও এমন ঘটনা নিয়মিত ঘটে। বলতে বলতে চোখ মুছে নিলেন তিনি। তার কা’ন্নায় আমাদের চোখও ভিজে উঠল।

Check Also

ভালো নেই পূর্ণিমা

ঢাকাই সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা ভালো নেই। হঠাৎ করে কয়েকদিন ধরে ঠাণ্ডাজ্বর ও গলা ব্যথায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.