Home / মিডিয়া নিউজ / ছবি শেষে নায়ককে জড়িয়ে পরীমনি’র কান্না

ছবি শেষে নায়ককে জড়িয়ে পরীমনি’র কান্না

আজ সারাদেশে মুক্তি পাচ্ছে গিয়াস উদ্দিন সেলিম অভিনীত চলচ্চিত্র স্বপ্নজাল। ছবি মুক্তির আগেই

বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হলো ছবিটির প্রিমিয়ার শো। এতে উপস্থিত

হয়েছিলেন, কুশীলব, সাংবাদিক ও অতিথিরা।ছবি শেষ হবার সাথে সাথেই পুরো থিয়েটার করতালিতে ভরে যায়।

সকলেই ব্যস্ত হয়ে যায় ছবি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা। একই সাথে আসন ত্যাগ করে ’এক্সিট’

গেটের দিকে যেতে থাকেন অতিথিরা। হঠাৎই দেখা যাচ্ছে পরীমনির কান্না। ছবি শেষ হবার সাথে সাথে এতোটাই আবেগে ছুঁয়ে যায় যে দীর্ঘ সময় ধরে ছবির অভিনেতা ইয়াশ রোহানকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে থাকেন। এক মিনিট চলে যায়, দুই মিনিট চলে যায়, পরীর কান্না থামে না।অতিথিরা চলে যাওয়ার সময় থমকে দাঁড়াচ্ছিলেন এই ’দৃশ্য’ দেখে।

প্রিমিয়ারে পরীমনির অভিনয় দারুণ ভাবে প্রশংসিত হয়েছে। ছবির সকল অভিনেতা অভিনেত্রীই দুর্দান্ত অভিনয় করেছেন বলে প্রিমিয়ারে আগতরা মন্তব্য করেন। কারো কারো মতে পরীমনির ’এই অভিনয়’ প্রত্যাশা অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে।নির্মাতা আবু শাহেদ ইমন এই কান্না নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে লিখেছেন, ’আজকে স্বপ্নজাল ছবির প্রিমিয়ার শেষ হবার পর ইয়াশ রোহানকে জড়িয়ে ধরে পরীমনি অনেকক্ষণ কাঁদছিলেন।

স্বপ্নজালে অপুকে জড়িয়ে শুভ্রার কান্নার এই রকম একটি মুহূর্তের জন্য দর্শক হিসেবে আপনি হয়ত হাহাকার করবেন!তিনি লিখেছেন, সিনেমায় সেটা হয়েছে কি হয়নি কিংবা… হলে কি হতো, সেটা জানতে আজ থেকে দলে বলে সবাই হলে যান! শো শেষ হবার পর সিনেমার চরিত্ররা বাস্তব জীবনে এক অদ্ভুত মূহুর্তে এসে দাঁড়িয়েছিল। এই রকম অসংখ্য টুকরো টুকরো স্বপ্নের সুন্দর বুননে সুনির্মিত হয়েছে স্বপ্নজাল।

অবশ্য পরীমনিও স্বপ্নজালকে নিজের ’মাইলস্টোন ফিল্ম’ হিসেবে মনে করছেন। নিজের সহস্যাল হ্যান্ডেলে পরীমনি লিখেছেন, স্বপ্নজালা আমার শুধু অভিনীত ছবিই নয়, শুভ্রা আমার আইডেন্টিটি।পরীমনি-ইয়াশ রোহান ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন ইরেশ যাকের, ফজলুর রহমান বাবু এবং মিশা সওদাগরসহ অনেকে। সিনেমাটির সংগীত পরিচালনা করছেন অর্ণব।২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে চাঁদপুর শহরের ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে ’স্বপ্নজাল’-এর শুটিং শুরু হয়।এরপর কলকাতাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে দৃশ্যধারণের কাজ হয়।

kalerkantho

Check Also

খোঁজ পাওয়া গেল সালমান শাহের আরেক নায়িকা সন্ধ্যার

ঢালিউডে তিনি যাত্রা করেছিলেন ‘প্রিয় তুমি’ সিনেমা দিয়ে। সেটা ১৯৯৫ সালের কথা। কলেজে পড়ার সময় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.