Home / মিডিয়া নিউজ / ‘আমার কাছে প্রেম মানে ‘ওয়ান টাইম’’

‘আমার কাছে প্রেম মানে ‘ওয়ান টাইম’’

ফেসবুকের কল্যাণে ডিশ ব্যবসায়ী থেকে রীতিমত তারকা বনে গেছেন হিরো আলম। সময়ের আলোচিত

চরিত্রও তিনি। ডাক পাচ্ছেন নতুন নতুন সিনেমা আর নাটকে। তাকে নিয়ে সমালোচনা আলোচনা বলিউড

পর্যন্ত বিস্তৃত। যেখানে বাংলাদেশের অনেক নামি তারকাও পৌঁছাতে পারেনি। হতে পারে মানহিন

যৎসামান্য কাজের মাধ্যমে তিনি খ্যাতি পেয়েছেন কিন্তু সেটা নিজের চেষ্টায়ই পেয়েছেন।

পাঁচ ফুট এক উচ্চতার রোগা এই তারকা কলকাতা গিয়েছিলেন একটা ইভেন্ট প্রোগ্রামে অংশগ্রহন করতে। আর সেখানেই বাংলাদেশের আলোচিত সমালোচিত এই ইউটিউব তারকার ইন্টারভিউ নিলেন ওপার বাংলার শুভঙ্কর চক্রবর্তী।

পাঠকের জন্য সেই সাক্ষাৎকার তুলে ধরা হল,

আচ্ছা আমরা শুনেছি ওপার বাংলার ফ্যান ক্রেজের কথা। এখানে (কলকাতা) কী করে লোকে আপনাকে চেনে?

দ্যাখেন, কলকাতায় আমি আগেও আইসি। এই নিয়া সেকেন্ড বার। আমার কাছে এপার-ওপার বলে কিছু নাই। দু’দেশ সমান সমান। প্রথমবার যখন আইলাম, আমায় নিয়া উন্মাদনা দেইখ্যা, অবাক হইসি। আর এইবার আওনে বুঝসি উন্মাদনা এতটুকুও কমে নাই। এয়ারপোর্টে ল্যান্ড করার পরই, পাবলিক কইতাসিল “হিরো আলম, হিরো আলম”।

কলকাতায় আসার কারণ হিসেবে হিরো আলম জানালেন, এবার বর্ধমানে একটা ইভেন্ট প্রোগ্রামে আইসি। আর পাশাপাশি আমার একটা মুভির কথাও চলতাসে। এই দুইটার বিষয় নিয়াই মূলত এ দেশে আসা।

একদম নামহীন থেকে নামজাদা হয়ে ওঠার যাত্রা টা বিচক্ষণতার সাথে ব্যাখ্যা করলেন হিরো আলম। তিনি বললেন।

আমার আসল নাম আশরাফুল হোসেন আলম। এই নামটা অনেকের অজানা। লোকে আমারে চিনে হিরো আলম বইল্যা। আমি কোনওদিন আশা করি নাই এত ভাইরাল হোয়া যামু। এইটা জানতাম, ইচ্ছাশক্তি থাকলে আপনেও হিরো হইতে পারেন। লোকে সাধনা করে, ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হওনের জন্য। আমি চেষ্টা করসিলাম হিরো হব। লোকে বলত, হিরো হতে গেলে বডি, চেহারা লাগে। কিন্তু আমার মধ্যে কোনওটাই নাই। আমি তাও ট্রাই করসি। আর আল্লার দোয়া, যে আমি পারসি। আমার রং কালো, রোগা, একবার আমার দিকে তাকালে আর আমারে দেখতেও ইচ্ছা করে না। তাও আমি হিরো।

নিজের নামের আগে ‘হিরো’ বসানোর কারণ হিসেবে সে জানায়, প্রতিটা হিরো-কে একজন প্রোডিউসার ‘হিরো’ বানায়। ৫০-৬০ সিনেমা ফ্লপ করতে করতে একজন হিরো হয়। কিন্তু আমারে কেউ হিরো বানায় নাই। আমি নিজেরে নিজেকে ‘হিরো’ বানাইসি। শুধু উপরওয়ালা সঙ্গে ছিল।

জীবনে প্রেমে পড়ে নিয়ে হিরো আলম বললেন, আগে কিন্তু কেউ আমার সাথে প্রেম করতে চাইত না। আমার চেহারা খারাপ তাই। আর এখন যারা প্রেম করতে চায়, তারা আমারে নয় ‘হিরো আলম’-রে পেতে চায়। আমার কাছে প্রেম মানে ‘ওয়ান টাইম’। একবারই করসি, বিয়াও করসি।

নিজের অনুপ্রেরণা নিয়ে হিরো আলম বলেন, দু’জন মানুষকে আমি হামেশা ফলো করসি। আমাদের দেশের সালমান শাহ। এবং আপনের (ভারত) দেশের সালমান খানকে। যখন নাটক করি বা গান-নাচ করি, আমি এই দু’জনকে দেখি, তারা কীভাবে নাচেন, অভিনয় করেন।

Check Also

ভালো নেই পূর্ণিমা

ঢাকাই সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা ভালো নেই। হঠাৎ করে কয়েকদিন ধরে ঠাণ্ডাজ্বর ও গলা ব্যথায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.